MVP (Minimum Viable Product) নূন্যতম টেকসই পণ্য

ক্যারিয়ারের শুরু থেকেই আমি প্রডাক্ট নিয়ে কাজ করেছি। কিন্তু সেগুলা ছিল ফিজিক্যাল প্রডাক্ট। প্রায় ৫ বছর কাজ করার পর আমি গত মাসে HandyMama জয়েন করলাম, প্রডাক্ট ম্যানাজার পোষ্টে। এই প্রথম কাজ শুরু করলাম ডিজিটাল প্রডাক্ট নিয়ে।

ডিজিটাল প্রডাক্ট নিয়ে পড়া শুরু করার পর, জানতে পড়লাম কোন প্রডাক্ট তৈরি করার আগে প্রডাক্টের  MVP বের করতে হবে। জিনিসটা খুবই মজার এবং সহজ। তার পর Mosharrof Rubel ভাই এর বল্গ পরেও জানতে পারলাম MVP আসলে কি। MVP বা Minimum Viable Product মানে নূন্যতম টেকসই পণ্য। এক কথায় বলা যায় প্রডাক্ট তৈরির আগে চিন্তা করে নিতে হবে আমার প্রডাক্ট দিয়ে নূন্যতম কি কাজ হতে পারে।

যেমন SnapChat এর MVP কি ছিল? SnapChat এর MVP ছিল ছবি পাঠানো যাবে এবং সেটা ভিউ করা যাবে টেম্পরারিলি এর পর ছবি চলে যাবে আর দেখা যাবে না। শুধু মাত্র এই একটা ফিচারের উপর ফোকাস করে SnapChat এর ডেভেলপমেন্ট শুরু হয়। এই ফিচার সাক্সেস হওযার পর SnapChat বাকি ফিচার গুলি ডেভেলপ হয়।

এমন অনেক প্রডাক্টই আছে যেগুলা এখন MVP থেকে অনেক আলাদা। মানে, প্রথমে যে ফিচারকে Core ফিচার বিবেচনা করে প্রডাক্ট বানানো হয়েছিল এখন সে প্রডাক্টের কোর ফিচার সেটা আর নেই। এই ক্ষেত্রে Instagram একটা ভাল উদাহরন হতে পারে। Instagram এর MVP ছিল ফিল্টার। হতে পারে ৫ থেকে ৬ টা ফিল্টার ছিল। প্রডাক্ট থেকে ছবি তুলা যাবে, গ্যালারি থেকে ছবি সিলেক্ট করা যাবে, আর ছবি ফিল্টার করে গ্যালারিতে সেইভ করা যাবে। এখন Instagram MVP থেকে কতটা ভিন্ন। Instagram ফিল্টার যখন অনেক পপুলার হল তারপর পরের আপডেট গুলি ডেভেলপ করা হল। প্রফাইল, ভিডিও এইসব।

যদি ইনিসিয়াল ফিচার কাজ না করে, তাহলে পরের আপডেট গুলির আসলে কোন দরকারই নেই। সে ক্ষেত্রে নতুন কোন প্রডাক্ট নিয়ে চিন্তা করা যেতে পারে। ইনিসিয়াল লেভেলে প্রডাক্ট কাজ না করলে আসলে মন খারাপ করার কিছু নাই। এর মানে সফল একটি প্রডাক্ট ডেভেলপ করার সম্ভবনা বেশি।

Define the MVP of your product. Build that first set of features and test it on the market. 🙂

Enjoy !

3 thoughts on “MVP (Minimum Viable Product) নূন্যতম টেকসই পণ্য

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *